প্রয়াত ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়

শেষ হল ভারতীয় রাজনীতির একটি অধ্যায়। প্রয়াত দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়৷ বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর৷ তাঁর প্রয়াণের খবর জানিয়েছেন ছেলে ও প্রাক্তন সাংসদ অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। সোমবার দিল্লির সেনা হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি৷

           গত ৯ অগস্ট বাড়ির শৌচাগারে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। তারপর থেকেই দিল্লির সেনা হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। গত ১০ অগস্ট তাঁর মাথায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল মাথার জমে থাকা রক্ত বের করার জন্য। এছাড়াও তাঁর স্নায়ুর সমস্যাও ছিল। ১৩ অগস্ট থেকে কোমায় ছিলেন তিনি। অপারেশনের আগে প্রণববাবুর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে৷ ফুসফুসের সংক্রমণ ছাড়াও কিডনি সমস্যারও চিকিৎসা চলছিল। রবিবার হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছিল, যে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন। তাঁর কিডনিও উন্নতি করেছে। তবে সোমবার ফের তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়।

        একটা দীর্ঘ সময় তাঁকে বলা হত, ভারতীয় রাজনীতির চাণক্য৷ জাতীয় রাজনীতিতে কংগ্রেস যখনই বিপদে পড়েছে, ত্রাতা হিসেবে বারবার উঠে এসেছেন তিনি৷ জাতীয় কংগ্রেসের  রাজ্যস্তরের নেতা থেকে ধাপে ধাপে পৌঁছেছিলেন একেবারে রাজনীতির শীর্ষে৷ দেশের ১৩তম রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়৷ ভারতীয় রাজনীতিতে বাঙালিদের দাপট নতুন নয়৷ সেই দাপুটে বাঙালি রাজনীতিবিদদের অন্যতম ছিলেন প্রণববাবু৷ ১৯৬৯ সালে কংগ্রেসের টিকিটে রাজ্যসভায় সাংসদ নির্বাচিত হন৷ তত্‍কালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধির অত্যন্ত বিশ্বস্ত সৈনিক হয়ে ওঠেন অচিরেই৷ ১৯৮২ সাল থেকে ১৯৮৪ পর্যন্ত প্রণব মুখোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী ছিলেন৷ ১৯৮০ থেকে ১৯৮৫ পর্যন্ত রাজ্যসভায় কংগ্রেসের দলনেতা ছিলেন৷ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী পিভি নরসীমা রাও তাঁকে পরিকল্পনা কমিশনের প্রধান পদে নিযুক্ত করেন৷ পরে ১৯৯৫ সালে প্রণববাবু বিদেশমন্ত্রী হন৷ ১৯৯৮ সালে রাজীব গান্ধির স্ত্রী সনিয়া গান্ধিকে দলের সভানেত্রী হওয়ার পরামর্শ দেন৷ ২০০৪ সালে যখন কংগ্রেসের নেতৃত্বে ইউপিএ ক্ষমতায় এল, সে বার প্রণববাবু প্রথমবার লোকসভা আসনে জয়লাভ করেন৷ ২০১২ সালে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ইউপিএ-র মনোনীত প্রার্থী ছিলেন তিনি৷ ২০১৭ সাল পর্যন্ত প্রণব মুখোপাধ্যায় ছিলেন ভারতের রাষ্ট্রপতি৷ তারপর তিনি রাজনীতি থেকে অবসর নেন৷ ২০১৯ সালে ভারত রত্ন সম্মানে ভূষিত হন প্রণব মুখোপাধ্যায়। বাংলার রাজনীতির তুলনায় দিল্লির অলিন্দেই ছিল তাঁর অবাধ বিচরণ৷

            প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, ‘ওঁর প্রয়াণ এক যুগের সমাপ্তি। রাষ্ট্রপতি ভবনকে সাধারণের জন্য খুলে দিয়েছিলেন তিনি।’

          ট্যুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি লিখেছেন, ‘ভারতরত্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণে শোকাহত দেশ।’ করেছেন স্মৃতিচারণ।

ট্যুইট করে শোকবার্তা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শোকজ্ঞাপন করেছেন রাহুল গান্ধী।

Published by

Swarnali Goswami

A person with full of energy and positivity.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s