১ লক্ষ ২০ হাজার বছর আগেকার মানুষের পায়ের ছাপের সন্ধান পাওয়া গেল

সৌদি আরবে ১ লক্ষ ২০ হাজার বছর  আগেকার মানুষের পায়ের ছাপের সন্ধান পাওয়া গেল। বিজ্ঞানীদের মতে, আরব উপদ্বীপে খুঁজে পাওয়া পায়ের ছাপের মধ্যে এগুলি সবচেয়ে পুরনো। সৌদি আরবের তাবুক অঞ্চলের উত্তরে একটি শুকিয়ে যাওয়া হ্রদের ধারে মানুষের সাতটি পায়ের ছাপ খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

        এই গবেষণার সঙ্গে যুক্ত জার্মানির ম্যাক্স প্লাঙ্ক ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল ইকলজির গবেষক ম্যাথু স্ট‌ুয়ার্ট জানিয়েছেন, পায়ের চিহ্ন জীবাশ্মের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রূপ। দু’জন মানুষের হেঁটে যাওয়ার চিহ্ন বলেই মনে হচ্ছে এই পায়ের ছাপগুলি দেখে। পায়ের ছাপের জীবাশ্মের মাধ্যমে সেই সময়ের এক একটা মুহূর্ত ধরা থাকে। তার ফলে সেখান থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যায় বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। ওই হ্রদের ধারে ২৩৩টি এমন জীবাশ্ম পাওয়া গিয়েছে, যেগুলিতে মানুষ ছাড়াও হাতি-সহ অন্যান্য প্রাণীর পায়ের ছাপ মিলেছে। ‘সায়েন্স অ্যাডভান্সেস’ জার্নালে এই বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, সেই সময়ে এই হ্রদের জল পান করা হত। মানুষের পাশাপাশি অন্য প্রাণীরাও এই হ্রদের জল পান করতে আসত। ওই প্রতিবেদনে আশা করা হয়েছে আফ্রিকা মহাদেশ থেকে বিভিন্ন প্রান্তে পূর্বপুরুষদের ছড়িয়ে পড়ার পথের নতুন খোঁজ পাওয়া যাবে গবেষণায়। সেই সময় মানুষেরা বড় বড় স্তন্যপায়ী প্রাণী শিকার করত বলেই জানা যাচ্ছে ওই পায়ের ছাপ থেকে। তারা এক জায়গায় বেশি দিন থাকত না। গবাদি পশু সঙ্গে ছিল না তাদের। জলের ধারে থাকত তারা। তবে গবেষকেরা বলছেন, তাঁরা যে পায়ের ছাপ খুঁজে পেয়েছেন, তা অপেক্ষাকৃত আধুনিক মানুষের। কারণ নিয়ানডারথালদের সঙ্গে এর পার্থক্য রয়েছে। ওই সময়ে মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে নিয়ানডারথালদের অস্তিত্ব পাওয়া যায় না। ম্যাথু স্টুয়ার্ট জানিয়েছেন, তিনি তাঁর পিএইচডি করার সময় ২০১৭ সালে প্রথম ওই পায়ের ছাপ দেখতে পান। তারপর তাই নিয়ে গবেষণা চালান তিনি।

               এক সময় সবুজ এবং আর্দ্র অবস্থায় থাকলেও জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আচমকা শুষ্ক ও রুক্ষ দেশ হয়ে ওঠে সৌদি আরব, এ কথা গবেষকরা আগেও বলেছেন। সৌদি আরবের প্রাকৃতিক ও ভৌগোলিক পরিস্থিতি বারবার পরিবর্তিত হয়েছে। এই আচমকা পরিবর্তনের ফলেই হয়ত এত বছর আগের পায়ের ছাপটি রয়ে গেছে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

Published by

Swarnali Goswami

A person with full of energy and positivity.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s