প্রয়াত কিংবদন্তি কবি অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত

কিংবদন্তি কবি অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত প্রয়াত। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। বার্ধক্যজনিত কারণে দীর্ঘদিন ধরেই ভুগছিলেন তিনি। জার্মানিতে নিজস্ব বাসভবনে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত নটা নাগাদ মৃত্যু হয় অলোকরঞ্জন দাশগুপ্তর। তাঁর স্ত্রী এলিজাবেথ এই মৃত্যুসংবাদ জানান। কলকাতায় পড়াশোনার সাথে সাথেই তাঁর কাব্যচর্চার শুরু। তিনি লিটল ম্যাগাজিনসমূহের সঙ্গে যুক্ত হয়ে মূল জার্মান লেখাগুলিকে বাংলা ভাষায় অনুবাদ করতে থাকেন। রবীন্দ্র অনুসারী কাব্য থেকে বাংলা কবিতা এক পৃথক খাতে বয়ে যাওয়ার শুরু পঞ্চাশের দশকে। এই সময়ে যাঁরা নিজস্ব ভাষাভঙ্গি নিয়ে লিখতে এসেছিলেন অলোকরঞ্জন ছিলেন তাঁদের অগ্রপথিক, ছিলেন কবি শঙ্খ ঘোষের পরমবন্ধু। হামবোল্ড ফাউন্ডেশান ফেলোশিপ নিয়ে অলোকরঞ্জন একসময়ে পাড়ি দেন জার্মানিতে। বাংলা ভাষার সঙ্গে জার্মান সাহিত্যের মেলবন্ধনের রূপকার তিনিই। দুভাষাতেই প্রচুর অনুবাদ করেছেন। ১৯৭১ সাল থেকে তিনি জার্মানির হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ এশিয়া ইনসিটিটিউটে শিক্ষকতা করেছেন। তিনি ভারত ও জার্মানির মধ্যে ঘনিষ্ঠ সংযোগ প্রচারের জন্য প্রধান একটি প্রতিষ্ঠান, ডয়চে-ইন্দিসচে গেসেলশ্যাফ্টের (ডিআইজি) সাথে নিবিড়ভাবে যুক্ত ছিলেন। তরুণ প্রজন্মের সঙ্গে অলোকরঞ্জনের ছিল এক অদ্ভুত বন্ধুতা। জার্মান সরকার তাঁকে গ্যেটে পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে পুরস্কৃত করেছেন। ১৯৯২ সালে ‘মরমী কারাত’ কাব্যগ্রন্থটির জন্য তিনি সাহিত্য অ্যাকা়ডেমি পুরস্কার পান। এ ছাড়াও পেয়েছেন রবীন্দ্র পুরস্কার, আনন্দ পুরস্কার। এমন অসামান্য কবির প্রতি রইল শ্রদ্ধাবিনীত প্রণাম।

Published by

Swarnali Goswami

A person with full of energy and positivity.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s