হাওড়ার সর্বত্র ১০০ শতাংশ পরিশ্রুত জল সরবরাহের প্রকল্পে খরচ হবে ২০০০ কোটি টাকা

স্বর্ণালী গোস্বামী

07.03.2020

হাওড়া জেলার সমস্ত বাসিন্দা আগামী দশ বছরের মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমানে পরিশ্রুত পানীয় জল পাবেন। প্রত্যেক বাড়ি বাড়ি তা পাইপলাইনের মাধ্যমে পৌঁছে যাবে। ভূগর্ভস্থ জলের ওপর নির্ভরতা একেবারে শূন্যে নামানোর জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
আপাতত জেলার তিনটি জায়গায় নদী থেকে জল তুলে তা প্রক্রিয়াকরণ, শোধনের পর বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। রাজ্য সরকারের জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দফতর এই কাজের জন্য আর্থিক ব্যয় বরাদ্দ করবে। হাওড়া জেলা পরিষদ এবং ডিস্ট্রিক্ট ওয়াটার অ্যান্ড স্যানিটেশন মিশন কাজগুলির দেখাশোনা, প্রকল্পের জন্য জায়গা নির্বাচনসহ অন্যান্য কাজ করবে। ইতিমধ্যেই এই কাজ শুরু হয়ে গেছে। এই প্রকল্পের মধ্যে আরও কয়েকটি পরিকল্পনা রয়েছে। তবে জলপ্রকল্পগুলির নির্মাণ, পাইপলাইনের সংযোগ তৈরি এবং সরবরাহের কাজ আগামী পাঁচ বছরের মধ্যেই শেষ করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসনের কর্তারা।
শুক্রবার হাওড়া জেলা ওয়াটার অ্যান্ড স্যানিটেশন মিশনের একটি বৈঠক হয়। উপস্থিত জেলা সহ সভাধিপতি
অজয় ভট্টাচার্য জানান, তাঁদের লক্ষ্য হল হাওড়া জেলায় ১০০ শতাংশ পরিস্রুত পানীয় জলের সরবরাহ নিশ্চিত করা। কোথাও যাতে ভূগর্ভস্থ জলের ওপর নির্ভরতা না থাকে তাও নিশ্চিত করা। যত দিন যাচ্ছে, ভূগর্ভস্থ জলের স্তর তত নেমে যাচ্ছে। পরবর্তীতে যাতে মাটির নিচ থেকে জল তোলা পুরোপুরি বন্ধ না হয়ে যায়, সেই কারণেই এই ব্যবস্থা বলে জানান অজয়বাবু।
হাওড়া জেলা পরিষদ সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, বালি, উলুবেড়িয়া এবং সাঁকরাইলে মোট তিনটি জল উৎপাদন প্রকল্প তৈরী হবে, যেখানে ২০০০ কোটিরও বেশি টাকা খরচ হবে বলে ধরা হয়েছে। উলুবেড়িয়ার জল প্রকল্পের জন্য সবচেয়ে বেশি টাকা খরচ ধরা হয়েছে। এই প্রকল্পের আনুমানিক খরচ প্রায় ১১০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে বালি-জগাছার পঞ্চায়েত এলাকার জন্য বালিতে ৬০০ কোটি টাকার প্রকল্পের কাজ অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে। উলুবেড়িয়ার কালীনগরে গঙ্গায় তৈরি হবে ইনটেক জেটি। জানা গেছে সেখান থেকে অপরিশোধিত জল তুলে তা পরিশোধন করা হবে প্রকল্পে।

প্রধানমন্ত্রী গুজবে কান না দিতে এবং গুজব না ছড়াতে অনুরোধ করলেন

স্বর্ণালী গোস্বামী

07.03.2020

আজ শনিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভারতীয় জনৌষধি পরিযোজনা কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি ওই কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের মানুষকে গুজব না ছড়াতে এবং গুজবে কান না দিতে অনুরোধ করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এরকম সময়ে নানা ধরনের গুজব ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই আপনাকে বলবে এটা খাবেন না, সেটা করবেন না। প্রতিদিন আপনি নতুন নতুন উপদেশ শুনতে পাবেন। কেউ আবার বলবে এটা খেলে করোনা সেরে যাবে। সবচেয়ে উচিত কাজ হল ডাক্তারের পরামর্শ মেনে চলা’। তাই গুজবে কান না দিয়ে যা করা উচিত তাই করতে হবে এবং নিজে সতর্ক থাকতে হবে।
এদিকে শেষ পাওয়া খবর, শহরে মাস্ক এবং স্যানিটাইজারের আকাল পড়েছে। রাজ্য সরকার এই পরিস্থিতিতে কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়ে জানিয়েছে, সঠিক প্রেস্ক্রিপশন ছাড়া যেন মাস্ক বিক্রি না করা হয়। উল্লেখ্য, ‘হু’ থেকে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সুস্থ ও স্বাভাবিক মানুষের জন্য কোনও মাস্কের প্রয়োজন নেই। যদি কোনও ব্যক্তি অসুস্থ হন, তাহলেই মাস্কের দরকার। তবে সব ফ্লু করোনা নয়।
করোনা ভাইরাসের বাড় বাড়ন্ত দেখে আগ্রার মেয়র নবীন জৈন তাজমহল সহ ভারতের যে সমস্ত জায়গায় বিদেশি পর্যটকদের ভিড় বেশি হয়, সেই সব জায়গা আপাতত বন্ধ রাখার আবেদন জানিয়েছেন। তাঁর অনুরোধ, একটা বড় সংখ্যক বিদেশি পর্যটক আগ্রায় আসেন তাজ মহল দেখতে। মূলত বিদেশিদের থেকেই করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। উত্তরপ্রদেশ সরকার পরিস্থিতি মোকাবিলায় নজরদারি ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা আরও বাড়িয়েছে।
অপরদিকে সানফ্রান্সিসকোতে জাহাজ আটকে দেওয়া হল। ক্রুজে থাকা ২১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রমাণিত হওয়ায় সুরক্ষা গাইডলাইন মেনে সানফ্রান্সিসকোতে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না ওই জাহাজকে বলে জানালেন ওই দেশের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। প্রিন্সেস নামের ওই ক্রুজে মোট ২৪০০ যাত্রী এবং ১১০ জন ক্রু মেম্বার রয়েছেন। জাহাজটিকে কোনও নন কমার্শিয়াল পড়তে নিয়ে গিয়ে সমস্ত যাত্রীকে কোরোনাভাইরাস ইনফেকশনের পরীক্ষার পরেই যাত্রীদের ঢুকতে দেওয়া হবে। করোনা আতঙ্কের জেরে লন্ডন ও সিঙ্গাপুরে ফেসবুকের অফিস বন্ধ রাখা হয়েছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আশ্বাসবাণী দিলেন, মার্কিন নাগরিকদের এই মুহূর্তে মার্কিন নাগরিকদের এই মুহূর্তে ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই।

উপাচার্যের ইস্তফা গ্রহণ করা হবে না জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

স্বর্ণালী গোস্বামী

07.03.2020

রবীন্দ্রভারতীর ঘটনা নিয়ে জল গড়াল অনেকদূর। বৃহস্পতিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া দোল খেলার ছবির পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার সিঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয় রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফে।
এদিকে শুক্রবার গোটা রাজ্যজুড়ে এই নিয়ে চাপান-উতোর চলার পর সন্ধ্যায় রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সব্যসাচী বসু রায়চৌধুরী পরিস্থিতির সার্বিক নৈতিক দায় নিতে নিয়ে ইস্তফা দিলেন। তিনি রাজভবনে, উচ্চশিক্ষা দফতরের সচিবের কাছে এবং শিক্ষামন্ত্রীর কাছে ইস্তফাপত্র পাঠিয়েছিলেন। যদিও শিক্ষামন্ত্রীর দফতর থেকে ইস্তফাপত্র প্রাপ্তিস্বীকার করা হয়নি। তবে শিক্ষামন্ত্রী উপাচার্যের ইস্তফাপত্র নিজে রাজি নন। তাঁর মতে, উপাচার্য তো কোনও দোষ করেননি। সব্যসাচীবাবুর সঙ্গে কথা হলে এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চাইবেন বলে জানান পার্থবাবু। রাত অব্দি সব্যসাচী বাবুর সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
যদিও শুক্রবার ওই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছেন অভিযুক্ত পাঁচজন পড়ুয়া। জানা গেছে এ বছর পাস সিস্টেম করা সত্ত্বেও প্রচুর জাল পাস বেরিয়েছে, তার ফলেই বহিরাগতদের এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। সব মিলিয়ে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হল, আগামী বছর রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে আদৌ বসন্ত উৎসব হবে কি না তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

করোনাভাইরাস নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হবেন না বললেন মুখ্যমন্ত্রী

স্বর্ণালী গোস্বামী

শুক্রবার নবান্নে বৈঠক ডেকে রাজ্যবাসীকে আশ্বস্ত করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে যাদের ভর্তি করা হয়েছে, তাদের কারও শরীরে করোনা ভাইরাস পজিটিভ পাওয়া যায়নি। পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী জানান, সব ভাইরাসই করোনা নয়, সব সর্দি, কাশি, জ্বর-ই করোনা নয়। তিনি রাজ্যবাসীকে আতঙ্কিত না হতে বলেছেন।
করোনা নিয়ে যে গুজবের সৃষ্টি হয়েছে, তার ফলে সাধারণ মানুষ যাতে বিভ্রান্ত না হয়ে যান, সেই কারণে রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতর এই ভাইরাসের বিষয়ে যাবতীয় তথ্য দিয়েছে। এছাড়াও শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলন করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান,
১) ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ, এনআরএস, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ, হাওড়া জেলা হাসপাতাল, আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতাল, সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজ, আরামবাগ ও কাকদ্বীপ মহকুমা হাসপাতাল, ডায়মন্ডহারবার হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ড রাখা হয়েছে। ২) প্রতিটি জেলায় অ্যাডভাইজারি পাঠানো হয়েছে। জরুরি অবস্থার জন্য তৈরী আছে কুইক রেসপন্স টিম। ৩) রাজ্যের সীমান্ত এলাকাগুলিতে বিশেষ নজরদারির দল পাঠানো হয়েছে। জয়গাঁ, বনগাঁ, রাধিকাপুর, চ্যাংড়াবান্ধায় স্ক্রিনিং চলছে। সীমান্ত এলাকাগুলিতে স্ক্রিনিং সেট-আপ গড়ে তোলার ব্যবস্থাও চলছে। ৩) যাঁরা বিমানে আসছেন, তাঁদের দিকেও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। অন্তর্দেশীয় উড়ানে বিশেষ চেকিং-এর ব্যবস্থা করা হবে। চিন, জাপান, সিঙ্গাপুর, তাইল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া সহ ১৯টি দেশ থেকে আসা ১৫০১ জন পর্যটকের বিশেষ স্ক্রিনিং করা হয়েছে। আইসোলেশন ওয়ার্ডে ২৩৪ জনকে ভর্তি করা হয়েছিল, এখন সেখানে মাত্র দু’জন রয়েছে। কারও শরীরেই সংক্ৰমণ ধরা পড়েনি। ৪) বিভিন্ন রেলস্টেশন, নদীবন্দর, বিমানবন্দরে এবং চেকপোস্টে বিশেষ চেকিং চলছে। গোটা রাজ্যে ৮ লক্ষ ৪২ হাজার ১০০টি স্ক্রিনিং হয়েছে। কারও শরীরে কোরোনাভাইরাস ধরা পড়েনি। ৫)আপৎকালীন অবস্থার জন্য রাজ্য সরকারের তরফে চালু করা হয়েছে বিশেষ হেল্প লাইন নম্বর। ০৩৩২৩৪১২৬০০। এই হেল্পলাইন নম্বর ২৪ ঘন্টা খোলা থাকবে। এছাড়াও ‘করোনা কল সেন্টার’ নামে আর একটি টোল ফ্রি নম্বর রাখা হয়েছে। ১৮০০৩১৩৪৪৪২২২। ৬) জেলা হাসপাতালগুলিতে চিফ মেডিক্যাল অফিসারের অধীনে কাজ করবেন অভিজ্ঞ ডাক্তাররা। ভাইরাস সংক্রমণের মোকাবিলা করতে প্রতিটি হাসপাতালে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও সরঞ্জাম রাখার ব্যবস্থা হয়েছে। ৭) আরও ওষুধ ও মাস্ক পাঠানোর জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, এই সময় ওষুধ ও মাস্কের দাম বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কালোবাজারি বন্ধ করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মাস্ক নিয়ে কালোবাজারি হলে সব বাজেয়াপ্ত করে নেওয়া হবে বলে মানুষকে হুঁশিয়ার করে দেন তিনি।
তিনি আরো বলেন, মাস্কের বিকল্প হিসেবে শাড়ির আঁচল দিয়ে বা ওই জাতীয় কাপড় দিয়ে নিজেরাই মাস্ক তৈরী করে নেওয়া যায়। আগে তো তাই করা হত। ‘ওল্ড ইজ গোল্ড’। তিনি সংক্ৰমণ রুখতে বেশ কিছু সাবধানতা অবলম্বন করার কথাও বলেন। তিনি জানান, ‘জ্বর হলে ১৪ দিন বিশ্রাম নিন। প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। হাঁচি-কাশির সময় সকলে রুমাল ব্যবহার করুন, প্রতি ঘন্টায় হাত ধুয়ে ফেলুন, রাস্তায় থুতু ফেলবেন না, নোংরা থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখুন। শুধু নিজেকে নয়, বাড়ির সকলকে সুস্থ রাখার চেষ্টা করুন’।

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই চুরি গেল ২ হাজার মাস্ক

স্বর্ণালী গোস্বামী

সারা বিশ্বে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে করোনাভাইরাস। এই ভাইরাস থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় পরিচ্ছন্নতা বলছেন চিকিৎসকেরা। ভারতেও দেখা দিয়েছে এই ভাইরাসের প্রকোপ। এমনকি পশ্চিমবঙ্গেও তিনজন রোগীকে পরীক্ষার জন্য বেলেঘাটার আইডি হাসপাতালে আনা হয়েছে। তবে এর মাঝেও এমন কিছু ঘটনা ঘটে, যা আমাদের অবাক করে দেয়।
তেমনই ঘটনা ঘটেছে ফ্রান্সে। ফ্রান্সের একটি হাসপাতাল থেকে ২হাজার মাস্ক চুরি গেল। হাসপাতাল কর্মী ও রোগীদের জন্য বরাদ্দ ছিল এই বিশেষ মাস্কগুলো। যে সব রোগীর অস্ত্রোপচার হয়েছে, তাদের এই মাস্ক দেবার কথা ছিল। তবে মাস্ক চুরি যাওয়ার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের একাংশ চিন্তায় পড়েছে, কিভাবে এই সংকটের মোকাবিলা করা হবে তাই নিয়ে। যদিও হাসপাতাল সূত্রের খবর, যে পরিমানে মাস্ক এখনও সংরক্ষিত রয়েছে, তা দিয়ে আপাতত সকলকে সুরক্ষিত রাখা যাবে। চুরি যাওয়ার ঘটনা ধরা পড়ার সঙ্গে সঙ্গে আরও অনেক মাস্কের জন্য অর্ডার দেওয়া হয়েছে।
তবে কে বা কারা চুরি করেছে এই মাস্ক তার তদন্ত শুরু হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের আশা, অভ্যন্তরীণ তদন্তে এর উত্তর পাওয়া যাবে। ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি এম্মানুয়েল ম্যাকরন নিজেই ঘটনাটির উল্লেখ করে জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় ফ্রান্স সব ধরণের ব্যবস্থা নিয়েছে।

রবীন্দ্রভারতীতে বসন্ত উৎসবে অশ্লীলতার দায়ে অভিযোগ দায়ের করা হল

স্বর্ণালী গোস্বামী

বৃহস্পতিবার রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের বি টি রোড ক্যাম্পাসে দোল উৎসবের কিছু ছবি ঘিরে বিতর্ক তৈরী হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনীদের একাংশ এই উৎসবে অশ্লীলতার অভিযোগে সরব হয়েছেন। কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রাক্তনীরা।
প্রতি বছরের মত এ বছরও রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে দোল উৎসবের আয়োজন করা হয় বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে। পড়ুয়ারা ছাড়াও তাতে যোগ দিয়েছিলেন বহিরাগতরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে রাতে। সেখানে দেখা যায়, ‘রোদ্দুর রায়ে’র গাওয়া রবীন্দ্রসংগীতের বিকৃত কিছু লাইন মহিলাদের পিঠে আবির দিয়ে লেখা। মেয়েদের পাশাপাশি কয়েকজন ছেলের বুকেও অশ্লীল শব্দ লেখা ছিল। যা নিয়ে অশ্লীলতার অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রাক্তনীরা ক্ষোভ উগরে দেন।
আজ সিঁথি থানায় দোল খেলায় অশ্লীলতার দায়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ দায়ের করল রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়। অভিযুক্তরা চন্দননগরের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ছবিগুলি সত্য। ভুয়ো বা ফটোশপ করে তৈরী করা নয়। উল্লেখ্য, গত বছর বসন্ত উৎসবকে কেন্দ্র করে মদ্যপ অবস্থায় কয়েকজন পড়ুয়াকে পাওয়া যায়। যা নিয়ে প্রচুর বিতর্ক শুরু হয়েছিল। সেই কারণে এ বছর থেকে পাস দেওয়ার ব্যবস্থা চালু করা হয়। এছাড়াও বি টি ক্যাম্পাসে প্রচুর সিসিটিভি লাগানো হয়েছিল এবং পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল।

ইয়েস ব্যাঙ্কের শেয়ার কিনে নিতে পারে স্টেট ব্যঙ্ক অফ ইন্ডিয়া

যা আশঙ্কা করা হয়েছিল, তাই হল। ইয়েস ব্যাঙ্ক থেকে আর ৫০ হাজারের বেশি টাকা তোলা যাবেনা। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার পরামর্শ মত ইয়েস ব্যাঙ্কের সমস্ত কাজ কর্মের ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করল কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থমন্ত্রক। আগামী অন্তত এক মাস অব্দি এই নিয়ম কার্জকর থাকবে বলে জানা যাচ্ছে। এই নিষেধাজ্ঞার ফলে ইয়েস ব্যাঙ্কের গ্রাহকরা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা অব্দি তুলতে পারবেন। তার বেশি টাকা তোলার অধিকার কোনও গ্রাহকের থাকবে না ইয়েস ব্যাঙ্ক থেকে।

সূত্রের খবর, তীব্র সঙ্কটে চলা এই ব্যাঙ্ককে ১২,০০০ কোটি টাকা থেকে ১৪,০০০ কোটি টাকা মূলধন জোগানোর জন্য

এসবিআই-এর নেতৃত্বে ব্যাঙ্কগুলির একটি কন্সোর্টিয়াম গড়ার প্রস্তাব দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। কেন্দ্রীয় সরকার এই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে দেখছে। আরবিআই-এর খসড়া প্রস্তাব অনুসারে ইয়েস ব্যাঙ্ককে রক্ষা করার জন্য মোট ৬টি ব্যাঙ্কের কনসোর্টিয়াম তৈরির কথা বলা হয়েছে। সেগুলিকে যুক্তিকরণের কেন্দ্রে থাকবে এসবিআই। আইসিআইসিআই, এইচডিএফসি, কোটাক মহিন্দ্রা ব্যাঙ্ক,

ইন্ডাসইন্ড ব্যাঙ্ক এবং আক্সিস ব্যাঙ্কের মত বেসরকারি ব্যাঙ্ককে এই কন্সোর্টিয়ামে থাকা ব্যাঙ্কগুলির মধ্যে ভাবা হচ্ছে। এই মর্মে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় একগুচ্ছ পদক্ষেপের কথা জানিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

ইয়েস ব্যাঙ্কের শেয়ার কিনে নিতে পারে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া

যা আশঙ্কা করা হয়েছিল, তাই হল। ইয়েস ব্যাঙ্ক থেকে আর ৫০ হাজারের বেশি টাকা তোলা যাবেনা। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার পরামর্শ মত ইয়েস ব্যাঙ্কের সমস্ত কার্যকলাপের ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করল কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থমন্ত্রক। আগামী অন্তত এক মাস অব্দি এই নিয়ম কার্যকর থাকবে বলে জানা যাচ্ছে। এই নিষেধাজ্ঞার ফলে ইয়েস ব্যাঙ্কের গ্রাহকেরা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত টাকা তুলতে পারবে। তার বেশি টাকা তোলার অধিকার কোনও গ্রাহকের থাকবে না ইয়েস ব্যাঙ্ক থেকে।
সূত্রের খবর, তীব্র সংকটে চলা এই ব্যাঙ্ককে ১২,০০০ কোটি টাকা থেকে ১৪,০০০ কোটি টাকা মূলধন জোগানোর জন্য এসবিআই-এর নেতৃত্বে ব্যাঙ্কগুলির একটি কনসোর্টিয়াম গড়ার প্রস্তাব দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। কেন্দ্রীয় সরকার এই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে দেখছে। আরবিআই-এর খসড়া প্রস্তাব অনুসারে ইয়েস ব্যাঙ্ককে রক্ষা করার জন্য মোট ৬টি ব্যাংকের কনসোর্টিয়াম তৈরির কথা বলা হয়েছে। সেগুলিকে যুক্তিকরণের কেন্দ্রে থাকবে এসবিআই। আইসিআইসিআই, এইচডিএফসি, কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাঙ্ক, ইন্ডাসইন্ড ব্যাঙ্ক এবং অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের মত বেসরকারি ব্যাঙ্ককে এই কনসোর্টিয়াম থাকা ব্যাঙ্কগুলির মধ্যে ভাবা হচ্ছে। এই মর্মে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় একগুচ্ছ পদক্ষেপের কথা জানিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

মাঘ মাসে শীতের আমেজ

মাঘ মাস সবে শুরু হয়েছে, তারই মধ্যে শীত উধাও।